1. rashidarita21@gmail.com : bastobchitro :
শৃঙ্খলা ফেরাতে অ্যাকশন শুরু | Bastob Chitro24
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হারল বাংলাদেশ মাঝ আকাশে তীব্র ঝাঁকুনি, বিমানযাত্রীর মৃত্যু রাইসির হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার পর সহায়তা চেয়েছিল ইরান: যুক্তরাষ্ট্র বিজেপি ৪০০ পার করলে, পাক অধিকৃত কাশ্মীর ভারতের অংশ হয়ে যাবে ডেঙ্গু নিয়ে মিথ্যাচার করছেন মেয়র তাপস: সাঈদ খোকন বাজারভিত্তিক সুদহারে হস্তক্ষেপের ইঙ্গিত বাংলাদেশ ব্যাংকের কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমী কালচারাল অফিসার সুজন রহমানের পারিবারিক সংগঠনের সন্ধান ১৩৯ উপজেলায় দলীয় প্রতীকহীন ভোট আজ সহিত্যিক মীর মোশাররফ স্কুলের প্রাচীর সংস্কার হচ্ছে অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে। সরকারি মালিকানাধীন ২৮টি শিল্পপ্রতিষ্ঠান লোকসানে চলছে

শৃঙ্খলা ফেরাতে অ্যাকশন শুরু

ঢাকা অফিস
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৮ জুন, ২০২২

পদ্মা সেতুতে দিনভর সেনাবাহিনী, পুলিশ ও সেতু কর্তৃপক্ষের সমন্বিত অভিযান, দাঁড়িয়ে ছবি তুললেই ধাওয়া ওয়ার্নিং জরিমানা, উঠতে না পেরে মাওয়ায় বিক্ষোভ, জাজিরায় সড়ক অবরোধ মোটরসাইকেলচালকদের

স্বপ্নের পদ্মা সেতুতে শৃঙ্খলা আনতে অ্যাকশন শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ। গতকাল দিনভর সেতুতে চালানো হয়েছে সেনাবাহিনী, পুলিশ ও সেতু কর্তৃপক্ষের সমন্বিত অভিযান। প্রতি ২০০ গজ দূরত্বে সেনাবাহিনীর একজন করে সদস্যকে টহল দিতে দেখা গেছে। সেতুতে গাড়ি থামিয়ে ছবি তুলতে দেখলেই ধাওয়া দিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। গাড়ি থামিয়ে টিকটক ভিডিও বানানোয় কয়েকজনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। কাউকে কাউকে সতর্ক করে ছেড়েও দেওয়া হয়েছে। পদ্মা সেতু পারাপারে যাত্রীদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

অন্যদিকে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী গতকাল ভোর থেকে সেতুর দুই প্রান্তেই মোটরসাইকেল প্রবেশ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে সকালে মাওয়া প্রান্তে মোটরসাইকেলচালকদের কেউ কেউ বিক্ষোভ প্রদর্শন করলেও তাদের ফিরিয়ে দিয়েছে পুলিশ। দুপুরে সেতু পার হওয়ার দাবিতে জাজিরা প্রান্তে মোটরসাইকেলচালকরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। ২০ মিনিটের বেশি সময় রাস্তা অবরোধ থাকায় সেতুর প্রবেশমুখে যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে সেনাবাহিনী ও পুলিশের তৎপরতায় অবরোধকারীদের সরিয়ে দেওয়া হয়। সেতুতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাধারণ যাত্রীরা। গতকাল সেতুতে গিয়ে দেখা গেছে, যান চলাচল অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে এসেছে।

২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতু উদ্বোধনের পরদিন যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। প্রথম দিনই নাটবল্টু খুলে নেওয়া, মূত্র বিসর্জন, সেতুতে গাড়ি থামিয়ে টিকটক ভিডিও বানানোর মতো বিশৃঙ্খল ঘটনা ঘটেছে। কেউ কেউ সেতুতে শুয়ে-বসে, নাচানাচি করে ভিডিও বানিয়েছেন। দিন শেষে মোটরসাইকেল  দুর্ঘটনায় দুজনের মৃত্যু ছিল আলোচনার শীর্ষে। এসব ঘটনার পর রবিবার রাতেই সেতুতে শৃঙ্খলা রক্ষায় কঠোর হওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সেতু কর্তৃপক্ষ। এর অংশ হিসেবে নিষিদ্ধ করা হয় মোটরসাইকেল চলাচল। শৃঙ্খলা রক্ষায় সেনাবাহিনীর সহায়তা চেয়ে সেতু কর্তৃপক্ষ থেকে চিঠিও দেওয়া হয়।

 

ট্রাকে পার করা হচ্ছে মোটরসাইকেল

সেতুমন্ত্রীর আহ্বান : পদ্মা সেতু পারাপারে যাত্রীদের দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গতকাল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিনি এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘পদ্মা সেতু অবকাঠামো একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ জাতীয় স্থাপনা এবং দেশের এক বড় সম্পদ। এর নিরাপত্তা ও স্থায়িত্ব রক্ষা করা আমাদের সবার দায়িত্ব।’ সেতু পারাপারে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষ যেসব নির্দেশনা জারি করেছে, তা যথাযথভাবে পালন করে শৃঙ্খলা বজায় রাখার আহ্বান জানান তিনি।

ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা : পদ্মা সেতুতে অবৈধভাবে প্রাইভেটকার পার্কিং ও গাড়ি থেকে নেমে ভিডিও বানানোর দায়ে চার জনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এর মধ্যে পদ্মার মাঝামাঝিতে কর্তৃপক্ষের নিয়ম ভাঙার দায়ে ফখরুল আলম নামে একজনকে ১ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন  মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আশরাফুল কবীর। পরে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, সেতুর সার্বিক নিরাপত্তায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযান চলমান থাকবে। এ সময় আরও পাঁচটি গাড়িকে সতর্ক করা হয়েছে।

মাদারীপুর প্রতিনিধি জানান, পদ্মা সেতুর ওপর গাড়ি পার্কিং করে ছবি তোলার অভিযোগে তিনজনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। দুপুরে মাদারীপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল হাসান তিনটি গাড়িতে থাকা তিনজনকে ১ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করেন। অভিযুক্তরা হলেন- যশোরের বাবনাতলা গ্রামের বুলবুল হোসেনের ছেলে জুয়েল (৩০), ঢাকার উত্তরা এলাকার জাহাঙ্গীর হোসেনের ছেলে মেহেদী হাসান (৩০) ও শরীয়তপুরের জাজিরার জালাল উদ্দিনের ছেলে মোকলেস মিয়া (৪৫)।

সেতুতে যানবাহন না থামানোর আহ্বান সেনাবাহিনীর : পদ্মা সেতুতে যানবাহন থামানো ও যানবাহন থেকে নামা বন্ধের আহ্বান জানানো হয়েছে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে। গতকাল বিকালে সেতুর জাজিরা প্রান্তে টোলপ্লাজায় এক ব্রিফিংয়ে এমন আহ্বান জানান পদ্মা সেতু ইঞ্জিনিয়ারিং সাপোর্ট ও সেফটি কমান্ডিং টিমের সমন্বয়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. রবিউল আলম। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সেফ কমান্ডিং টিমের সিও লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. ফাহিম মাহবুব। লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. রবিউল আলম বলেন, ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেছেন। ২৬ জুন ভোর ৬টা থেকে সর্বসাধারণের জন্য যান চলাচলে সেতু উন্মুক্ত করা হয়। উদ্বোধনের পর থেকে নিরাপদে যান চলাচলের জন্য বাংলাদেশ ব্রিজ অথরিটি এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তথা পদ্মা সেতু ইঞ্জিনিয়ারিং সাপোর্ট ও সেফটি টিম নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সেতুর উপরিভাগে এবং মাওয়া-জাজিরা প্রান্তে অনেক গুরুত্বপূর্ণ মালামাল ও যন্ত্রপাতি রয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, জনগণ সরকারি নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও হেঁটে সেতুর ওপর ওঠার চেষ্টা করছে এবং সেতুর ওপর থেকে যানবাহনেও উঠছে। অনেকে যানবাহন থেকে নেমে সেতুর সৌন্দর্য অবলোকন ও ছবি-ভিডিও ধারণ করছে। এতে সেতুর ওপর তীব্র যানজটসহ দুর্ঘটনার ঝুঁকি বাড়ছে। শুধু তা-ই নয়, সেতুর ওপর রক্ষিত গুরুত্বপূর্ণ মালামাল ও যন্ত্রপাতির ক্ষতি সাধিত হচ্ছে। এ অবস্থায় সেতু কর্তৃপক্ষের অনুরোধে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক পদ্মা সেতুর ওপর মোবাইল টহল জোরদার করা হয়েছে। লেফটেন্যান্ট কর্নেল রবিউল বলেন, পদ্মা সেতুর উভয় প্রান্তের টোলপ্লাজায় মাইকিংয়ের মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে সেতুর ওপর গাড়ি থামানো ও গাড়ি থেকে না নামার ব্যাপারে অবহিত করা হচ্ছে। এ ছাড়া ডিউটি পোস্টের মাধ্যমে সেতুর ওপর কেউ যেন হেঁটে উঠতে না পারে, তা নিশ্চিত করা হচ্ছে।

শৃঙ্খলা রক্ষায় টোলপ্লাজায় মাইকিং : সেতু কর্তৃপক্ষের বিধিনিষেধ মেনে ও সেতুর ওপরে বিশৃঙ্খলা এড়াতে মাওয়া ও জাজিরা দুই প্রান্তের টোলপ্লাজায় মাইকিং করে সবাইকে সতর্ক করা হচ্ছে। কী কী করলে যাত্রী ও চালকরা জেল-জরিমানার মুখোমুখি হতে পারেন, মাইকিং করে সে বিষয়ে সচেতন করা হচ্ছে। এদিকে গতকাল সেতুতে যান চলাচল অনেকটাই স্বাভাবিক হয়ে এসেছে। দুই প্রান্তে এমন চিত্রই দেখা গেছে।

জাজিরায় মোটরসাইকেলচালকদের সড়ক অবরোধ : পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তের টোলপ্লাজার সামনে মোটরসাইকেল সড়কের ওপর রেখে বাস, ট্রাক ও প্রাইভেট কার চলাচলে বাধা দিয়েছেন চালকরা। গতকাল বেলা ১টা ৫০ থেকে ২টা ১০ মিনিট পর্যন্ত তারা সড়ক অবরোধ করেন। পরে সেনাবাহিনীর সদস্যরা এসে বাইকারদের বুঝিয়ে সরিয়ে দেন। এ সময় পদ্মা সেতুর টোলপ্লাজার সামনের সড়কে গাড়ির দীর্ঘ লাইন দেখা যায়। গতকাল ভোর ৬টা থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত পদ্মা সেতুতে মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করেছে সরকার। তাই সেতু দিয়ে পার না হতে পেরে ক্ষিপ্ত হয়ে সড়ক অবরোধ করেন বাইকাররা। নড়াইলের মাহমুদ হাসান লিটন, নওগাঁর মো. ইউসুফ আলী ও শিপনসহ মোটরসাইকেলচালকরা বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমরা মোটরসাইকেলে করে ঢাকা যাব। কিন্তু জাজিরা টোলপ্লাজায় এলে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা আমাদের পার হতে দিচ্ছেন না। তাই আমরা সড়ক অবরোধ করেছি।’ এর আগে সকালে কয়েক শ মোটরসাইকেল পদ্মা সেতু পার হওয়ার জন্য জাজিরা টোলপ্লাজায় আসে। মোটরসাইকেল নিয়ে পার হতে না পেরে অনেকে পিকআপে চেপে পদ্মা সেতু পার হন। পরে পিকআপে করেও মোটরসাইকেল পারাপারে বাধা দেওয়ায় সড়ক অবরোধ করা হয় বলে জানান চালক। এর আগে সকালে মাওয়া প্রান্তে অনেক বাইকার বিক্ষোভ করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। পরে পুলিশ তাদের সরিয়ে দিয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
প্রযুক্তি সহায়তায়: রিহোস্ট বিডি