1. rashidarita21@gmail.com : bastobchitro :
রোপা আমনের বীজতলা নিয়ে বিপাকে কৃষক | Bastob Chitro24
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৯:৫৪ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হারল বাংলাদেশ মাঝ আকাশে তীব্র ঝাঁকুনি, বিমানযাত্রীর মৃত্যু রাইসির হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার পর সহায়তা চেয়েছিল ইরান: যুক্তরাষ্ট্র বিজেপি ৪০০ পার করলে, পাক অধিকৃত কাশ্মীর ভারতের অংশ হয়ে যাবে ডেঙ্গু নিয়ে মিথ্যাচার করছেন মেয়র তাপস: সাঈদ খোকন বাজারভিত্তিক সুদহারে হস্তক্ষেপের ইঙ্গিত বাংলাদেশ ব্যাংকের কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমী কালচারাল অফিসার সুজন রহমানের পারিবারিক সংগঠনের সন্ধান ১৩৯ উপজেলায় দলীয় প্রতীকহীন ভোট আজ সহিত্যিক মীর মোশাররফ স্কুলের প্রাচীর সংস্কার হচ্ছে অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে। সরকারি মালিকানাধীন ২৮টি শিল্পপ্রতিষ্ঠান লোকসানে চলছে

রোপা আমনের বীজতলা নিয়ে বিপাকে কৃষক

ঢাকা অফিস
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১৯ জুলাই, ২০২২

আষাঢ়ের ৩০ দিন পার হলেও কাঙ্খিত বৃষ্টিপাত না হওয়ায় নাটোরের লালপুরে রোপা আমন ধানের বীজতলা তৈরি ও বীজতলায় ধানের বীজ রোপন নিয়ে বিপাকে পড়েছে এখানকার কৃষকরা। সঠিক সময়ে বীজতলায় ধানের বীজ রোপন করতে না পারলে রোপা আমন ধানের চাষ ব্যাহতের হতে পারে বলে আশঙ্খা করছেন কৃষকরা।

কিছু জমিতে কৃষকরা বৃষ্টির বিকল্প হিসেবে সম্পূরক সেচ দিয়ে বীজতলা তৈরি করলেও অনাবৃষ্টি ও তীব্র খরায় রোপা আমনের বীজতলাগুলো ফেটে যেতে শুরু করেছে। এ অবস্থায় নিয়মিত সম্পূরক সেচ দিয়েও তেমন উপকার পাচ্ছে না চাষিরা।

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার মাঠ ঘুরে দেখা যায়, প্রায় মাঠেই রোপা আমনের বীজতলা তৈরির জন্য কৃষকরা জমি পরিস্কার ও জমির আইল বেঁধে রেখেছে। সময়মত প্রয়োজনীয় বৃষ্টিপাত না হওয়ার কারনে বীজতলায় ধানের বীজ ফেলতে পারছেনা কৃষকরা। বীজতলায় ধান রোপনা নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন এই অঞ্চলের ধান চাষিরা।

উপজেলার স্থানীয় ধান চাষিরা বলছেন, বৃষ্টির উপর নির্ভর করে এ অঞ্চলের প্রায় ধানচাষিরাই বর্ষা মৌসুমে রোপা আমন ধানের চাষ করে থাকে। এবার আষাঢ় মাস শেষ হতে থাকলেও বৃষ্টিপাত না হওয়ায় বীজতায় সময়মত ধান রোপন সম্ভব হচ্ছেনা। অনেক কৃষক সম্পূরক সেচ দিয়ে বীজতলায় ধান বীজ রোপন করলেও বৃষ্টিপাত না হওয়ায় বীজতলা ফেটে চৌচির হয়ে যাচ্ছে। এছাড়াও বার বার বীজতলায় সম্পূরক সেচ দিতে বাড়তি টাকা গুনতে হচ্ছে চাষিদের। ফলে রোপা আমন চাষ নিয়ে অনেকটাই আশঙ্কায় দিন কাটছে এ অঞ্চলের কৃষকদের।

ধান চাষি আতিকুর রহমান, হাসিবুল ইসলাম ও আবুল কালাম বলেন, এখন বীজতায় চারা তৈরির সময়। কিন্তু সময়মত বৃষ্টি না হওয়ার কারণে মাটিতে রস না থাকায় মাটি ফেটে যাচ্ছে। সময়মত বীজতলায় ধান রোপন করা যাচ্ছেনা। ফলে রোপা আমন ধান চাষ বিলম্ব হচ্ছে। মাঠে পানি না থাকার কারনে বৃষ্টির পানি ছাড়া বিকল্প হিসেবে সেচ পাম্প দিয়ে জমিতে পানি দিয়েও তেমন লাভ হচ্ছে না বলে জানান ধান চাষিরা।

লালপুর উপজেলা কৃষি অফিসার রফিকুল ইসলাম বলেন, এবছর উপজেলায় ৪৪০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধানের বীজতলা তৈরির লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। বৃষ্টি না হওয়ার কারণে বীজতলা তৈরিতে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে। তবে কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে যে সকল বীজতলার পানি শুকিয়ে গেছে সে সকল জমিতে প্রয়োজনীয় সম্পূরক পানি সেচ দেওয়ার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে বলে জানালেন এই কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
প্রযুক্তি সহায়তায়: রিহোস্ট বিডি