1. rashidarita21@gmail.com : bastobchitro :
পড়ালেখার খরচ জোগাতে রিকশা নিয়ে বেরিয়ে স্কুলছাত্র খুন | Bastob Chitro24
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৯:৫৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ করা নিয়ে যা বললেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী সরকারের নির্দেশনায় আন্দোলন দমনের চেষ্টা চলছে: বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলন কোটা সংস্কারের দাবিতে কুষ্টিয়ায় কয়েকশত কোটা আন্দোলনকারীদের সাথে ছাত্রলীগের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া কুষ্টিয়া ও কিশোর অপরাধ পিএসসির প্রশ্ন ফাঁস: বড় দুর্নীতিবাজদের খুঁজছে সিআইডি রাস্তাঘাট বন্ধ না করে কোটা বিরোধীরা কোর্টে এসে তাদের কথা বলুক কুষ্টিয়ার এ্যাড. পলল, আন্তর্জাতিক শান্তি সংস্থা গ্লোবাল পিস চেইনের বৈশ্বিক শান্তি দূত হলেন কুষ্টিয়া ভূমি রেজিস্ট্রার অফিসে দুর্নীতির অভিযোগ কুষ্টিয়া ভূমি রেজিস্ট্রী অফিসে দুর্নীতির অভিযোগ স্বর্ণের দাম আবারো কমলো

পড়ালেখার খরচ জোগাতে রিকশা নিয়ে বেরিয়ে স্কুলছাত্র খুন

ঢাকা অফিস
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২২

স্কুল আর পড়ালেখার ফাঁকে বাবার রিকশা চালিয়ে যা দু-একশ টাকা আয় হতো, তা দিয়েই চলত সাব্বির বিশ্বাসের (১৫) স্কুলের খরচ। কিন্তু সেই রিকশা চালানোই তার জীবনে কাল হলো। শনিবার (২ এপ্রিল) সকাল ৮টার দিকে ফরিদপুর সদরের অম্বিকাপুর ইউনিয়নের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর দয়ারামপুর এলাকার ইউসুফ আলী জামে মসজিদের পেছন থেকে সাব্বিরের হাত-পা বাঁধা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সাব্বির সদর উপজেলার চরমাধবদিয়ার আছিরুদ্দিন মুন্সিরডাঙ্গী এলাকার বাসিন্দা। তার বাবার নাম আলমগীর বিশ্বাস। চার ভাইয়ের মধ্যে সে দ্বিতীয়। ফরিদপুর সদরের নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের পদ্মারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র ছিল সাব্বির। এলাকাবাসী, পুলিশ ও পরিবার সুত্রে জানা গেছে, শুক্রবার (১ এপ্রিল) সকালে বাবার ব্যাটারিচালিত রিকশা নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয় সাব্বির। পরে রাতে বাড়িতে না ফেরায় পরিবার-পরিজন বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নিয়ে তার কোনো সন্ধান পায়নি। অবশেষে (শনিবার) সকালে আমজাদ হোসেন মোল্লার ঘাস ক্ষেত ক্ষেতে সাব্বিরের মরদেহ দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ আজ সকাল ৮টার দিকে সাব্বিরের মরদেহ উদ্ধার করে। সাব্বিরের বাবা আলমগীর বিশ্বাস বলেন, শুক্রবার সকালে আমার সঙ্গে তার সর্বশেষ কথা হয়। ‘আজকে স্কুল বন্ধ, আমি রিকশা (ব্যাটারি চালিত) নিয়ে বের হলাম’ বলে আমার ছেলে আমার রিক্সা নিয়ে বের হয়েছিল। তিনি আরও বলেন, আমি যা আয় করি তা দিয়ে সংসারের খরচ মেটানোই মুশকিল হয়ে যায়। এ জন্য মাঝে মধ্যে সাব্বির পড়াশোনার ফাঁকে রিক্সা চালাতে চায়লে আমি না করতাম না। রিক্সা চালিয়ে সাব্বির যে আয় করত ওই টাকা দিয়ে সে তার খাতা, কলম, বই কিনত। পদ্মারচর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. উকিল উদ্দিন সর্দার বলেন, সাব্বির মেধাবী ছাত্র ছিল। অভাবের কারণে পড়াশোনার ফাঁকে সে রিক্সা চালাত। খবর পেয়ে সকালে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। যে নির্মমভাবে সাব্বিরকে হত্যা করা হয়েছে তা মেনে নেওয়া যায় না। ঘাতকদের সনাক্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই। ওই এলাকার বাসিন্দা মেহেদী হাসান বলেন, সাব্বির অত্যন্ত নম্র ও ভদ্র ছিল। আমি নিজেও সাব্বিরের রিক্সায় বেশ কয়েকবার চলাফেলা করেছি। এমন নিরীহ একটা ছেলের নির্মম মৃত্যুর খবর পেয়ে আঁতকে উঠেছি। পুলিশ জানায়, সাব্বিরের দুই হাত ও দুই পা বাঁধা ছিল। গলায় কাপড় পেঁচানো ছিল। ধারণা করা হচ্ছে হাত-পা বেঁধে গলায় কালো রঙের একটি কাপড় পেঁচিয়ে তাকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন রঞ্জন সরকার বলেন, খবর পেয়ে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ওই রিকশাচালকের ব্যাটারিচালিত রিকশাটি ছিনতাই করে নেওয়ার জন্য অজ্ঞাত ব্যক্তিরা তাকে হত্যা করে রিক্সাটি নিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে ফরিদপুর কোতয়ালী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। পুলিশ জানায়, যে রিক্সাটি সাব্বির চালাত সেটি পুরোনো। তবে সম্প্রতি ২০ হাজার টাকা দিয়ে ব্যাটারি কেনা হয় ওই রিক্সার জন্য। ধারণা করা হচ্ছে, এ বিষয়টি ঘাতকচক্র জানত। শুক্রবার রাত ১১টার দিকে অন্য কোনো জায়গা থেকে সাব্বিরকে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে দয়ারামপুর এলাকায় ওই ঘাসের মধ্যে ফেলে রাখা হয়। ফরিদপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুমন রঞ্জন সরকার বলেন, মৃতদেহটি উদ্ধার করে ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
প্রযুক্তি সহায়তায়: রিহোস্ট বিডি